Fri. Oct 18th, 2019

রঙিন অক্ষর সম্পর্ক

কঠিন সময়ে “আশমানের মাটি” প্রাণের স্পন্দন

1 min read
Spread the writing

শব্দসাঁকো নিউজ ডেস্ক : “কবিতাবাড়ি”এক বাঁধনছেড়া স্পর্ধার নাম।যে স্পর্ধা আগুন জ্বালাতে পারে চেতনায়, যাদের উচ্চারণ তুফান তুলতে পারে শীতল শোণিতে। “কবিতাবাড়ি”একটি আবৃত্তির দল।বয়সের বিচারে একেবারেই শিশু এই দলের জন্ম ২০১৭র ফেব্রুয়ারি মাসে। প্রথম আত্মপ্রকাশ ২০১৮র অক্টোবরে শিশিরমঞ্চে। কয়েকজন কবিতাপাগল তরুণ তরুণীকে সাথে নিয়ে দলের কর্নধার বিশিষ্ট আবৃত্তিশিল্পী, কবি, গায়ক পল্লব কীর্ত্তনীয়া যে স্বপ্ন ছড়িয়ে দিতে চেয়েছেন শুধু কবিতাকে সঙ্গী করে সে স্বপ্ন এক নতুন পৃথিবীর নতুন আলোর।

#আশমানেরমাটি#কবিতাবাড়ির একটা মর্মকবিতা আছে। সে কবিতার সমবেত উচ্চারণে শুরু হয় আমাদেরঅনুষ্ঠান। এ এক মন্ত্রোচ্চারণের মতো, এ এক শপথের উচ্চারণও বটে। আমরাশুদ্ধ হই, বুকে বুক বাঁধি আর দৃষ্টি মেলি উদার আশমানে। এ যতটা বাঁধনআমাদের, ততটাই মুক্তি। যতটা লড়াইয়ের সাহস ততটাই ভালবাসার আশ্রয়। আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর রবীন্দ্রসদনে মর্মকবিতার উচ্চারণে শুরু হবে আমাদের একগুচ্ছ স্বপ্ন প্রযোজনা ‘আশমানের মাটি’তে পথ চলা। কবিতা-বন্ধুদের ডাকছি সে শুভক্ষণে।অনলাইনে প্রবেশপত্রের লিঙ্ক : https://www.thirdbell.in/event/aashmaner-maati/কাছের বন্ধুরা আমাদের কাছ থেকে প্রবেশপত্র সংগ্রহ করার জন্য যোগাযোগ করতে পারেন ৮৭৭৭২০২৭৮৩, ৮৮২০৮৭৭০৬০ এই দুটি নম্বরে। এছাড়াও রবীন্দ্রসদনের কাউন্টার থেকে প্রবেশপত্র পাওয়া যাবে অনুষ্ঠানের তিনদিন আগে থেকে। অনুষ্ঠান শুরু বিকেল পাঁচটায়।

Posted by Nasrin Nazma on Jumaat, 13 September 2019

কবিতা আবৃত্তিকে এক নতুন আঙ্গিকে তুলে ধরতে কবিতাবাড়ি নেমেছে ভীষন এক ভাঙাগড়ার পরীক্ষায়।তথাকথিত আবৃত্তির ধারার বাইরে এসে কবিতার সাথে থিয়েটার, মাইম, নাচ ,প্রপস্,আলোর প্রক্ষেপন এর বিভিন্ন নিরীক্ষায় কবিতাবাড়ি ধরতে চাই এক নতুন দিগন্তকে।

কবিতাপাগল তরুণ-তরুণীকে সাথে নিয়ে দলের কর্নধার বিশিষ্ট আবৃত্তিশিল্পী, কবি ও গায়ক পল্লব কীর্ত্তনীয়া স্বপ্ন ছড়িয়ে দিতে চেয়েছেন শুধু কবিতাকে সঙ্গী করে। সে স্বপ্ন এক নতুন স্বপ্নের, নতুন আলোর। 

প্রচার প্রস্তুতি পর্ব

|| কবিতাবাড়ি সম্মাননা ২০১৯ প্রদান ||

যে কোনো শিল্পকর্মের মতোই কন্ঠচর্চাও এক ধরনের সাধনা। অনেকেই চর্চা ও চর্যার শ্রমে আর ভালোবাসায় আবৃত্তিকে অন্য মাত্রায় তুলে ধরেছেন। আবৃত্তির জগতে যারা প্রচারের আলোর তোয়াক্কা না করেও নিরলস কাজ করে চলেছেন তাদের কর্মোদ্যমের আলোয় কবিতাবাড়ি আলোকিত হতে চায়। প্রতিবছর তাদের বার্ষিক অনুষ্ঠানে ‘কবিতাবাড়ি সম্মাননা’ প্রদানের ভিতর দিয়ে এরকম। নিভৃতচারী গুণীদের।

সেই উদ্যোগের সূচনায় এবছর “কবিতাবাড়ি সম্মাননা ২০১৯” পাচ্ছেন লীজা চক্রবর্তী,কুচবিহার থেকে এবং শ্রাবণী চক্রবর্তী, চিত্তরঞ্জন থেকে।

কবিতাবাড়ি আসছে তাদের দ্বিতীয়বছরের বার্ষিক অনুষ্ঠানে। এ বছর থিম “আশমানের মাটি”। কবিতাবাড়ির তরফে বলা হয়েছে আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, রবীন্দ্রসদনে বিকেল ৫ টায় বসবে কবিতার আসর। কবিতার সঙ্গে আকাশ মাটি মিলেমিশে যাবে দিগন্তে। এমনই প্রত্যাশা কবিতাবাড়ি সংগঠনের। 

  •  
    47
    Shares
  • 42
  • 5
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *